শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১১ ফাল্গুন, ১৪৩০
Live TV
সর্বশেষ

ভুয়া নির্বাচনের মাধ্যমে সংসদকে কুক্ষিগত করেছে সরকার — মঈন খান

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
১২ জানুয়ারি, ২০২৪, ১২:৪৭ পিএম | 30
ভুয়া নির্বাচনের মাধ্যমে সংসদকে কুক্ষিগত করেছে সরকার — মঈন খান
১২ জানুয়ারি, ২০২৪, ১২:৪৭ পিএম | 30

 

মোঃ মোবারক হোসেন নাদিম
বিশেষ প্রতিনিধি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান অভিযোগ করে বলেছেন, ৭ জানুয়ারি ভুয়া ও প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে এই সরকার সংসদকে নিজেদের ইচ্ছেমতো কুক্ষিগত করে নিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন তিনি।
এর আগে আজ বেলা ১১টার দিকে দলীয় কার্যালয়ের মূল ফটকের তালা ভেঙে দলের নেতা-কর্মীরা ভেতরে প্রবেশ করেন। এরপর কার্যালয়টি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয়। ২৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশ পণ্ড হয়ে যাওয়ার পর থেকে এ কার্যালয়ে তালা ঝোলানো ছিল। এরপর আজ সেখানে সংবাদ সম্মেলন হলো।
সংবাদ সম্মেলনে আবদুল মঈন খান অভিযোগ করেন, ২৮ অক্টোবর ক্র্যাক ডাউনের পরে নয়াপল্টন কার্যালয় বেদখল করে নিয়েছিল। ৭ জানুয়ারির ভুয়া এবং প্রহসনের নির্বাচন করা হয়েছে। বাংলাদেশে গণতন্ত্র আজ মৃত বলেও মনে করেন তিনি।
৭ জানুয়ারি এই সরকারকে প্রত্যাখ্যান করে মানুষ ভোট বর্জন করেছে বলেও মন্তব্য করেন আবদুল মঈন খান। তিনি বলেন, জনগণ শুধু বর্জন করেনি এই আওয়ামী লীগ বাকশালি সরকারকে বর্জন করেছে।
দেশে ভুয়া ও প্রশাসনের নির্বাচন হয়েছে এই বিষয়টি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এসেছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন বিএনপির এই স্থায়ী কমিটির সদস্য। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলেছে বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি। আওয়ামী লীগ যত দিন ক্ষমতায় আছে, তাদের অধীনে নির্বাচন কমিশন সুস্থ-নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে পারবে না। আজকে বিশ্ববাসীর কাছে প্রমাণিত হয়নি আমরা যে আশঙ্কা করেছি, তা সত্যে পরিণত হয়েছে।’
বিএনপি নেতা মঈন খান বলেন, আজকে প্রমাণিত হয়েছে এভাবে ভুয়া সাজানো নাটক করে নির্বাচনের একটা আবহ তৈরি করে দেশে-বিদেশে ভাঁওতা দিয়ে কোনো গণতন্ত্র হতে পারে না। এটা প্রমাণিত হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংঘটিত ২৫০টি ঘটনা নিয়ে একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয়, যেটি মূলত নির্বাচনকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভিডিও এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমে পরিবেশন করা সংবাদ।
মঈন খান বলেন, ‘সারা দেশের নির্বাচনী সহিংসতা এবং ভুয়া ভোটসহ যত অপকর্ম হয়েছে, সবগুলো ডকুমেন্টেড হয়ে গেছে। এসব হয় মিডিয়াতে এসেছে, না হয় সোশ্যাল মিডিয়াতে এসেছে। এই দেশের মানুষের কাছে বিশ্ববাসীর কাছে প্রমাণিত সরকার গণতন্ত্র বিশ্বাস করে না। সরকার যেটাতে বিশ্বাস করে সেটা হলো একদলীয় বাকশাল বাকশালি শাসন। ৭ জানুয়ারি কোনো নির্বাচন হয়নি, এটাই স্পষ্ট হয়েছে যে ২৯৯টি আসনে কে জয়ী হবে, কে কত ভোট পাবে, কত শতাংশ ভোট পাবে, কোন আসনে কে সিট পাবে, তা আগেই নির্ধারিত হয়েছে। এটা আর আমাদের কথা নয়, প্রমাণসহ বিশ্ববাসীর কাছে এটা উদ্ভাসিত হয়েছে।’
আবদুল মঈন খান বলেন, ‘বিএনপি উদার গণতান্ত্রিক দল। বিএনপি জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাস করে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনরায় প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আছে। আমাদের উদ্দেশ্য ক্ষমতা নয়, বিএনপি ক্ষমতার জন্য রাজনীতি করে না। রাজনীতি করে জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য। সেই আন্দোলনে আমরা আছি। জনগণের অধিকার জনগণের কাছে ফিরিয়ে দেব।’
সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, দলের ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবেদিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

error: Content is protected !!