বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন, ১৪৩০
Live TV
সর্বশেষ

নেত্রকোনা ২ আসনে চার প্রার্থী মাঠে নিস্ক্রিয়

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
৫ জানুয়ারি, ২০২৪, ৮:৫০ পিএম | 12
নেত্রকোনা ২ আসনে চার প্রার্থী মাঠে নিস্ক্রিয়
৫ জানুয়ারি, ২০২৪, ৮:৫০ পিএম | 12

 

মোঃ জিয়াউল হক/ নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নির্বাচনী এলাকা ১৫৮ নেত্রকোনা -২ আসনে ৪ প্রার্থীর দেখা মিলছে না। নির্বাচন যদিও ঘনিয়ে আসছে তবুও চার প্রার্থীর দেখা পাচ্ছে না সাধারণ ভোটাররা। এই আসনটিতে দুই প্রতিমন্ত্রীর লড়াইয়ে ৪ প্রার্থী নিরব ভূমিকা পালন করছে। নেত্রকোনা ২ আসনে বর্তমান সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুর নৌকা প্রতীকের সাথে সাবেক উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় এর ঈগল মার্কার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে। মাঠের লড়াইয়ে একেকদিন একেকজন এগিয়ে যাচ্ছে। সাধারণ মানুষের মুখে মুখে আরিফ খান জয়ের আলোচনা বেশি থাকলেও দলীয়ভাবে নৌকা কে এগিয়ে রাখছে নেতা কর্মীরা। দলীয় নেতা-কর্মীদের একাংশ স্বতন্ত্র প্রার্থী আরিফ খান জয়ের পক্ষে সক্রিয় ভাবে গণসংযোগ করায় আওয়ামী লীগের সাধারণ কর্মীরাও দুই ভাগে বিভক্ত হয়েছে।প্রতিদিন পাল্টাপাল্টি মিছিলের মধ্য দিয়ে জানান দিচ্ছে কেউ কারও থেকে দুর্বল নয়। এই দুই প্রার্থীর লড়াইয়ের মাঝে ৪ প্রাথীর দেখা মিলছে না। তাদের মধ্যে ডাব প্রতীকের প্রার্থী আজহারুল ইসলাম খান কে বারহাট্টা বাসী চিনে নেই না। বি এন এম এর নোঙ্গর প্রতীকের প্রার্থী এ বি এম রফিকুল ইসলাম প্রথম কয়েকদিন মাইকে প্রচারণা চালালেও মাঠে তাহার দেখা মিলছে না। জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মোছাঃ রহিমা আক্তার ( আসমা আশরাফ) এখন পর্যন্ত মাঠে আসেনি। তিনি ২০১৭ সালে জেলা পরিষদ নির্বাচনে বারহাট্টার প্রতিটি হাটবাজারে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে বিপুল ভোটে জয় লাভ করেছিলেন। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে গ্রামাঞ্চলে উনার কোন পোষ্টার হ্যান্ডবিলও নেই। বারহাট্টার আরেক প্রার্থী মোঃ ইলিয়াস, মিনার প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন। বারহাট্টার প্রদান সড়কের পাশে, কিছু পোস্টার থাকলেও গ্রামাঞ্চলে কোন পোস্টার হ্যান্ডবিল নেই। নির্বাচনের আর মাত্র দুই দিন বাকী। বারহাট্টা আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী সুব্রত চন্দ্র সরকার ট্রাক প্রতীক নিয়ে নিরবে বসে আছে। এখন পর্যন্ত তার কোন কর্মী সমর্থক পাওয়া যায় নি। বারহাট্টা গোপালপুর গরুর বাজারের পাশে ট্রাক মার্কার একটি অফিস থাকলেও জন সমাগম নেই। তবে বারহাট্টা উপজেলায় এখন পর্যন্ত কোন আশংকাজনক ঘটনা ঘটে নি। সবাই শান্তিপ্রিয়ভাবে তাদের নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছে। ইতোমধ্যে বারহাট্টা উপজেলা অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তাদের সেনা ক্যাম্প স্থাপন করেছে। নির্বাচন শান্তিপ্রিয় করতে বারহাট্টা থানা পুলিশও সবসময় তৎপর থেকে তাদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।

error: Content is protected !!