শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১১ ফাল্গুন, ১৪৩০
Live TV
সর্বশেষ

কুমারখালীতে প্রতিপক্ষের হামলায় গুলিবিদ্ধ আহত সেই নৌকার সমর্থক জিয়ার মৃত্যু

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
১৫ জানুয়ারি, ২০২৪, ৯:৫০ পিএম | 50
কুমারখালীতে প্রতিপক্ষের হামলায় গুলিবিদ্ধ আহত সেই নৌকার সমর্থক জিয়ার মৃত্যু
১৫ জানুয়ারি, ২০২৪, ৯:৫০ পিএম | 50

 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে প্রতিপক্ষের হামলায় গুলিবিদ্ধ নৌকার সমর্থক জিয়ার হোসেন (৪৫) মারা গেছেন। (১৫ জানুয়ারি) সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। জিয়ার হোসেন কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের বের কালোয়া গ্রামের কেঁদো শেখের ছেলে। নিহতের আরেক ভাই আলতাফ হোসেন একই হামলায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনে নৌকা প্রার্থীর পক্ষে ভোট করায় গত ১২ জানুয়ারি সকালে সাবেক ইউপি সদস্য খালেক ও তার লোকজন জিয়ার এবং তার ভাই আলতাফকে গুলি করে। এতে গুরুতর আহত হন তারা। এ ঘটনায় কুমারখালী থানায় মামলা হয়েছে। জিয়ার সোমবার বিকেলের দিকে পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। আরও জানা গেছে, কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের বের কালোয়া গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল খালেকের সঙ্গে কেঁদো শেখের ছেলেদের বহুবছর ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল। পদ্মা নদীতে মাছ ধরা, যেকোনো নির্বাচনসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রায় দুপক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়তো। গত শুক্রবার সকালে বের কালোয়ারা মোড়ে দুপক্ষ আগ্নেয়াস্ত্রসহ সংঘর্ষে জড়ায়। এতে দুই ভাই গুলিবিদ্ধ হয়।

নিহতের ছোট ভাই ইয়ারুল বলেন, নৌকায় ভোট দেওয়ার অপরাধে খালেক ও তার লোকজন আমার দুই ভাইকে গুলি করে আহত করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় জিয়ার মারা গেছেন। অন্যজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

error: Content is protected !!