বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪, ৫ আষাঢ়, ১৪৩১
Live TV
সর্বশেষ

উত্তাল মার্চ ২২ মার্চ, ১৯৭১: ‘মুক্তির লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন’

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
২২ মার্চ, ২০২৪, ৩:৫০ অপরাহ্ণ | 115
উত্তাল মার্চ ২২ মার্চ, ১৯৭১: ‘মুক্তির লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন’
২২ মার্চ, ২০২৪, ৩:৫০ অপরাহ্ণ | 115

লাগাতার চলা অসহযোগ আন্দোলনের ২১তম দিবস। আজও স্বাধিকার তথা স্বাধীনতার দাবিতে বিক্ষুব্ধ মানুষের সভা, শোভাযাত্রা এবং গগনবিদারী স্লোগানে রাজধানীর আকাশ-বাতাস মুখরিত ছিল। প্রকৃতপক্ষে বঙ্গবন্ধুর ডাকে রক্তঝরা উত্তাল অসহযোগ আন্দোলনের প্রতিটি দিনই ছিল বৈপ্লবিক।
জয় বাংলা শ্লোগানে মুখরিত হাজার হাজার মানুষ বঙ্গবন্ধু বাসভবনের দিকে দৃপ্ত পদক্ষেপে এগিয়ে যায়। দৈনিক পত্রিকাগুলো পরদিন সেই খবর প্রকাশ করে লেখে, একদিনে এত মিছিল এর আগে কখনও ৩২ নম্বরে যায়নি।
বাসভবনে জনতার উদ্দেশে বঙ্গবন্ধু এদিনও বেশ কয়েকবার বক্তৃতা দেন। জনতার গগনবিদারী ‘জয় বাংলা’ ‘জয় বঙ্গবন্ধু’ ধ্বনি ও করতালির মধ্যে স্বাধীনতার মহানায়ক ঘোষণা করেন, “সাত কোটি বাঙালি যখন ঐক্যবদ্ধ হয়েছে, তখন আমি অবশ্যই দাবি আদায় করে ছাড়ব।”
সকাল ১০ টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জুলফিকার আলী ভুট্টো ও ইয়াহিয়া খান প্রেসিডেন্টের বাসভবনে বৈঠকে বসেন। এটি ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়ার ষষ্ঠ দফা বৈঠক। ১ ঘণ্টা ২০ মিনিটের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে কোনো ধরনের সমঝোতায় পৌঁছানো সম্ভব হয়নি। এক পর্যায়ে বৈঠক স্থগিত হয়ে যায়।
এদিন বিদেশী টেলিভিশনের সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘দেশের সাড়ে সাত কোটি মানুষের নির্বাচিত বৈধ প্রতিনিধি হিসেবে শাসন করার নৈতিক বৈধতা কেবলমাত্র আমারই রয়েছে, অন্য কারও নয়।’

error: Content is protected !!