বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪, ৫ আষাঢ়, ১৪৩১
Live TV
সর্বশেষ

ঝিনাইদহে আদম ব্যবসায়ী সোহেলের প্রতারণার শিকার একাধিক অসহায় পরিবার

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ৯:৩০ অপরাহ্ণ | 596
ঝিনাইদহে আদম ব্যবসায়ী সোহেলের প্রতারণার শিকার একাধিক অসহায় পরিবার
২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ৯:৩০ অপরাহ্ণ | 596

 

মীর মিবলু,ঝিনাইদহ ঃ

ঝিনাইদহ জেলার সদর উপজেলার ২নং সাগান্ন ইউনিয়নের ,বকশিপুর গ্রামের মিলন হোসেনের ছেলে সোহেল (৩৪),তার বিরূদ্ধে মানব পাচারের সরাসরি জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে। তিনি সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে গরিব অসহায় মানুষের টারগেটকরে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে,মানুষদের কে বিভিন্ন দালাল চক্রের মাধ্যমে বিক্রি করে দেয়। এ মনি তথ্য উঠে এসেছে ভুক্ত-ভুগী একাধিক পরিবারের পক্ষ থেকে।
এরই মধ্যে সদর উপজেলার ২নং সাগান্ন ইউনিয়নের,বকশিপুর গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মাদের ছেলে আলমগীর(৪৩) কে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে নিজে পাসর্পোট করে এবং তিনি ঝিনাইদহ টি টি ছি থেকে ট্রেনিং করিয়ে,তাকে বিদেশ পাঠায়। মালায়শিয়া পাঠাতে আলমগীরের কাছ থেকে মোট পাঁচলক্ষের বনি বনা হয় তাদের মদ্ধে, নগদ দুই লক্ষ পঞ্চাশ হাজার (২,৫০,০০০) টাকা এবং বাকি টাকার জন্য একটি ব্লাং চেকে ও একটি স্টাম্পে সই করিয়ে নেয়, আলমগির বিদেশ যাবার আনেক দিন হয়ে গেল,কি আবস্থাই আছে এখনো তাও জানে না আলমগীরের পরিবার।

এছাড়াও এমনি ভাবেই গ্রাম সূত্রে জানা যায়, বকশিপুর গ্রামের এই দালাল ফাদেফেলে নিজ গ্রামের মোঃ আবুল হোসেনের ছেলে সুমন, মোঃ লতিফের ছেলে শাহিন সহ একাধিক মানুষকে দেশের বাইরে পাঠিয়েছে বলে জানা যাই এই মানব পাচারকারী,আদম ব্যবসায়ী সোহেল হোসেন ।

আলমগীর হোসেনের স্ত্রী সাথে কথা বলে জানা যায়, আলমগীর হোসেন অতি দারিদ্র একজন কৃষক অল্প একটু জমি চাষাবাদ করে কোন রকমের সংসারটা চালাই, বাড়িতে দুইটি সন্তান আর স্ত্রীকে নিয়ে কোনরকমই কেটে যাচ্ছিল দিন। আদম ব্যবসায়ী সোহেল হোসেন অল্প টাকায় বিদেশ পাঠিয়ে দেবে, তার সংসারের সুখ শান্তি ফিরে আসবে, তাই চুক্তির মাধ্যমে বিদেশে গিয়ে কাজ করে পরিশোধ করবে এয় আসাই বিদেশ যান আলমগির । এখন আলমগীর হোসেন এর সাথে তার পরিবারের কোনো যোগাযোগ নেই, আলমগীর হোসেন বেঁচে আছে কিনা মারা গেছে তাও জানে না তার পরিবার। এইদিকে ঋণের দায় মাথায় নিযে দুটি সন্তান নিয়ে পাগল হওয়ার উপক্রম হয়েছে,আলমগীরের স্ত্রীর, দুটো সন্তানের মুখে খাবার দেওয়ার মতন কোন সামর্থ্য নেই এই ভুক্তভোগী পরিবারের।এই সকল বিষয় নিয়ে আলমগীর হোসেনের বড় ভাই এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কে নিয়ে একটি উঠুন বৈঠকে বসে তখন তার ভাইয়ের খোঁজ জানতে চাইলে এলাকার মেম্বারের সামনেই আলমগীর হোসেনের ভাইকে বেধরক মারধর করে,
সাহেল হোসেনের কাছে এ সকল বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি ওদেরকে বিদেশে পাঠিয়েছি, আপনারা যা পারেন তাই করতে থাকুন। এলাকার মেম্বার কামাল হোসেন দিপু বলেন, আমি ওই উঠোন বৈঠকে বসেছিলাম, সেখানে এ সকল বিষয়ে কথা ওঠে, সোহেল হোসেন বিদেশে পাঠিয়েছে আলমগীর সহ আরো অনকের, মারধরের কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন আলমগীর হোসেনের ভাই উত্তেজিত হয়ে উঠলে, তার কারনে সোহেল হোসেন তার ভাইকে পিটায় ।

মীর মোঃ হাছানুজ্জামান শিবলু
মোবা ঃ ০১৯১৭-১০২৬৭৬

error: Content is protected !!