বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন, ১৪৩০
Live TV
সর্বশেষ

নরসিংদীতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়ীতে হামলা ভাংচুর ও ককটেল বিষ্ফোরণ

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
৯ জানুয়ারি, ২০২৪, ১১:০৮ পিএম | 41
নরসিংদীতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়ীতে হামলা ভাংচুর ও ককটেল বিষ্ফোরণ
৯ জানুয়ারি, ২০২৪, ১১:০৮ পিএম | 41

 

মোঃ মোবারক হোসেন নাদিম বিশেষ প্রতিনিধিঃ

আজ মঙ্গলবার (৯ ই জানুয়ারী ২০২৪ খ্রি.) দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নরসিংদী সদর -১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুজ্জামানের ঈগল প্রতীকের সমর্থকদের নয় কর্মীর বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেছে নরসিংদী সদর ১ আসনের আওয়ামী লীগের মনোনীত বিজয়ী প্রার্থী নজরুল ইসলামের নৌকা প্রতিকের সমর্থকরা।এসময় ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটানো হয় এবং তাদের হামলায় আহত হয়েছে বলে জানায় ভুক্তভোগীরা।আজ মঙ্গলবার বিকালে নরসিংদী সদর উপজেলার আলোকবালীর খোদাদিলা গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে।
প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায় নরসিংদী সদর ১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুজ্জামানের ঈগল প্রতীকের সমর্থকদের ৯ কর্মীর বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেছে আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থী নজরুল ইসলামের নৌকা প্রতিকের সমর্থকরা। এসময় ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটানো হয়।উক্ত বিষয়ে ভুক্তভোগী স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক ও আলোকবালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট আসাদ উল্লাহ জানান,বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে নৌকার সমর্থকরা খোদাদিলা গ্রামের বাজার থেকে মিছিল বের করে বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ শেষে ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি হাসান আলীর বাড়ীতে ভাংচুর করে।এর পরে আরও ৮ টি বাড়ীতে ভাংচুর করা হয়।এ সময় প্রায় ৩০ টি ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটানো হয়।ঐ এলাকার মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৬৫) বাঁধা দিলে তাকে মারধর করে।ভুক্তভোগীরা জানান, নৌকা মার্কার সমর্থকদের ঐ মিছিলে নেতৃত্ব দেন একই এলাকার আবু সিদ্দিকের ছেলে ও স্বাস্থ্য বিভাগের অধীনে খোদাদিলা গ্রামে স্বাস্থ্য সহকারী হিসেবে কর্মরত বজলুর রহমান ফাহিম (৪৫)। তিনি আলোকবালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ২ নং ওয়ার্ডের সহ সভাপতি ও নরসিংদী শহর আওয়ামীলীগের কার্য-নির্বাহী কমিটির সদস্য।আলোকবালী ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাবেক আহবায়ক মাইনউদ্দিন মিয়া বলেন, বজজুর রহমান ফাহিমের নেতৃত্বে ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন (২৭),সদস্য রবিউল মিয়া (২৯),কুয়েত প্রবাসী শিমুল (২৩)সহ ৪৫-৫০ জন আমাদের বাড়ীঘরে হামলা চালিয়ে ৯টি ঘরে রামদা দিয়ে কোপানোসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর করে।এ সময় আমাদের মারধর করার জন্য খোঁজ করা হয়।আমরা বাড়ীতে অবস্থান না করায় প্রাণে বেঁচে যাই।আমরা থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।
অভিযুক্ত বজলুর রহমান ফাহিম বলেন,লোকজন নিয়ে আমি বিজয় মিছিল করেছি এটা সত্যি কিন্তু হামলার কোনো ঘটনা ঘটানো হয় নাই।মিছিল করার সময় ফেসবুক লাইভ চলছিল, আপনি চাইলে লাইভও দেখতে পারেন।কারা হামলা চালিয়েছে,আমি জানি না, আমার সম্পৃক্ততা নেই।
নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীর আহমেদ বলেন, এমন ঘটনার খবর বা কোন অভিযোগ পাইনি।অভিযোগ পেলে আইনানুগ পদক্ষেপ নেয়া হবে।

error: Content is protected !!