শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪, ২৯ আষাঢ়, ১৪৩১
Live TV
সর্বশেষ

শাল্লা উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণত সম্পাদক সন্দিপন তালুকদারের উপর সন্ত্রাসীহামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
৯ জানুয়ারি, ২০২৪, ৯:৫৩ অপরাহ্ণ | 37
শাল্লা উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণত সম্পাদক সন্দিপন তালুকদারের উপর সন্ত্রাসীহামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন
৯ জানুয়ারি, ২০২৪, ৯:৫৩ অপরাহ্ণ | 37

 

শংকর ঋষি শাল্লা সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পেশাগত দায়িত্বপালন করতে গিয়ে শাল্লা উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সন্দীপন তালুকদারের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে শাল্লা উ পজেলা প্রেসক্লাব।

মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় উপজেলা শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে শাল্লা উপজেলা প্রেসক্লাবের আয়োজনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

প্রেসক্লাবের সভাপতি জয়ন্ত সেনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মণিকা রাণী দাশের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- সিনিয়র সদস্য বাদল চন্দ্র দাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী বদরুজ্জামান, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তৌফিকুর রহমান তাহের, প্রচার সম্পাদক প্রীতম দাশ, দপ্তর সম্পাদক চিন্ময় দাশ, অ্যাডভোকেট রাহুল চৌধুরী, সাবেক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রান্টুলাল দাস ও সুলতান মিয়া প্রমুখ।

এছাড়াও মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন- অরিন্দম চৌধুরী সাগর, এডভোকেট অমিতাভ চৌধুরী রাহুল, সবুজ সরকার, সমীরন সরকার, অনূকূল সরকার, মৃদুল চন্দ্র দাস সহ সমাজের নানান শ্রেণীর সচেতন ব্যক্তিবর্গ।

বক্তারা বলেন, সাংবাদিকরা দেশের সম্পদ, সত্য উন্মোচন করাই সাংবাদিকদের কাজ। কিন্তু সমাজের কিছু প্রভাবশালী লোক নিরীহ মানুষের পাশে থাকার পরিবর্তে তাদের মৌলিক অধিকার কেড়ে নিতে চায়। সাংবাদিকরা তা তুলে ধরার চেষ্টা করলেই হামলার শিকার হবে তা মেনে নেওয়া যায় না। গেল ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও শাল্লা উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়নের মির্জাপুর ভোট কেন্দ্রে কয়েকজন ভোটারকে ভোট প্রদানে বাধা দেয় একপক্ষের সমর্থকরা। সাংবাদিকদের কাছে সেই ভোটাররা এসে তা বলায় সাংবাদিকদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আটগাঁও ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী প্রকৃতির কিছু লোক সাংবাদিক সন্দীপন তালুকদারকে পিটিয়ে আহত করে। তার সাথে থাকা অন্য আরেক সহকর্মী প্রীতম দাশ দৌড়ে পালিয়ে প্রাণ বাঁচান। আমরা এমন বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলার বিচার চাই। সাংবাদিক সন্দীপন তালুকদার এখনও শাল্লা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। কিন্তু পুলিশের নিরবতায় আমরা উদ্বিগ্ন। পুলিশকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করার আল্টিমেটাম দেন সাংবাদিকেরা।

জানা যায়, হামলাকারীরা ওই সাংবাদিকের দু’টি এন্ড্রয়েড মোবাইল, লোগো সম্বলিত বাংলা টিভির বোম, প্রতিষ্ঠানের কার্ডসহ নগদ ১০হাজার টাকা চিনিয়ে নেয়। সন্দীপন তালুকদার সুজন দৈনিক ইত্তেফাক, সিলেট মিরর, সিলেট ভিউর শাল্লা উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এঘটনায় সন্দীপন তালুকদার বাদী হয়ে ১নং আটগাঁও ইউনিয়েনের ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম সহ ১২জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৩০জনকে আসামি করে ৯জানুয়ারি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এবিষয়ে শাল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান সাংবাদিকদের কাছে কিছুই বলতে রাজি হননি।

তবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দিরাই সার্কেল) শহীদুল হক মুন্সি মুঠোফোনে বলেন, অভিযোগ করা হলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

error: Content is protected !!