বুধবার, ২২ মে, ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১
Live TV
সর্বশেষ

আজিজুর রহমান মুন্না, সিরাজগঞ্জঃ

সিরাজগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী সাহিত্য পত্রিকা প্রভাতীর ৫০ বছর প্রকাশনার স্মরণ সংখ্যারমোড়ক উন্মোচন

আজিজুর রহমান মুন্না, সিরাজগঞ্জঃ
২০ জানুয়ারি, ২০২৪, ৮:৪৬ অপরাহ্ণ | 19
সিরাজগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী সাহিত্য পত্রিকা প্রভাতীর ৫০ বছর প্রকাশনার স্মরণ সংখ্যারমোড়ক উন্মোচন
২০ জানুয়ারি, ২০২৪, ৮:৪৬ অপরাহ্ণ | 19

সিরাজগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী সাহিত্য পত্রিকা প্রভাতীর ৫০ বছর প্রকাশনার স্মরণ সংখ্যারমোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে । কারুকাজ প্রকাশনীর আয়োজনে,

শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল ৩ টায় সিরাজগঞ্জ শহরের চৌরাস্তা সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের দ্বিতীয় তলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আ,ফ,ম মাহবুবুল হক পাঠাগারে সাহিত্য পত্রিকা প্রভাতীর ৫০ বছর প্রকাশনার স্মরণ সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিরাজগঞ্জের গৌরব গর্ব কথাসাহিত্যিক, বীরমুক্তিযোদ্ধা ইসহাক খান। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন, পাক্ষিক কারুকাজ প্রকাশনীর প্রকাশ মোঃ আমিরুল ইসলাম মুকুল।

এসময়ে অনুষ্ঠানে, সিরাজগঞ্জ প্রতিদিন পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক মোঃ ইসমাইল হোসেন, সিরাজগঞ্জের সামাজিক মানবিক সংগঠন অংশীর সভাপতি শ্যামলীখান, বীরমুক্তিযোদ্ধা জগলুল চৌধুরী, রাজনীতিবিদ লেখক সাইফুল ইসলাম, বিশিষ্ট কবি শ.ম. শহিদুল ইসলাম, সাংবাদিক জয়নাল আবেদীন জয়, স্বপন চন্দ্র সহ অন্যান্য কবি,সাহিত্যিক লেখক, সাংবাদিক, আবৃত্তিকার,পাঠক সহ গুনীজনদের অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বীরমুক্তিযোদ্ধা ইসহাক খান সংক্ষিপ্ত এক স্মৃতিচারন করে বলেন, ১৯৭৪ সালে সিরাজগঞ্জ কলেজে পড়ার সময় বন্ধু আমিরুল ইসলাম মুকুল একটি মাসিক সাহিত্য পত্রিকা প্রকাশ করে নাম ‘প্রভাতী’। সেই প্রভাতী পত্রিকায় আমার প্রথম গল্প প্রকাশিত হয়। এর আগে আমি নাটক লিখতাম। আমার প্রথম লেখা প্রকাশিত হয়েছে নাটক। প্রথম গল্প প্রকাশিত হয় প্রভাতীতে। তারপর যমুনায় অনেক জল গড়িয়েছে। সেই প্রথম গল্প প্রকাশ হওয়ার পর আমাদেরও অনেক পরিবর্তন হয়েছে। আমি নিজেও এখন ৩৫টি গ্রন্থের মালিক। সেই প্রথম গল্প ছাপা হওয়া পত্রিকা ‘প্রভাতী’র ৫০ বছর পুর্তির স্মরণসংখ্যার মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান করা হয় সিরাজগঞ্জ শহরস্থ ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ফ ম মাহবুবুল হক পাঠাগার’ কেন্দ্রে।
অবাক লাগে, কলেজের সেই দুরন্ত সময়ে বন্ধু আমিরুলের মাথায় সাহিত্য পত্রিকার পোকা কীভাবে ঢুকেছিলো? সেই প্রভাতী পত্রিকা ঘিরে আমাদের একটি সাহিত্য বলয় তৈরি হয়েছিল। সেখানে পেয়েছিলাম কবি সানাউল্লাহ শেখ, কবি নাট্যকার খ. . আক্তার, কবি শ. ম. শহীদুল ইসলাম, কবি গল্পকার নিশাত খান, কথাসাহিত্যিক ইকতিয়ার চৌধুরী, কবি শীলাজ ইসলাম, কবি আলী আশরাফ খান, কবি আলম খান, কবি রেজাউল হক রেজা, ডাক্তার আসগার হোসেন, কবি মোহন রায়হান, খান এ মান্নান, যোসেফ শতাব্ধী, খাজা মঈনুদ্দিন, কবি রুবি তালুকদার, কবি সালেহা খান জলি, কবি ওয়ালীউল ইসলাম, এড ফজলুর রহমান, কবি নাট্যকার ইন্দু সাহা, ছড়াকার সাইফুল ইসলাম, মাহমুদুল আলম হানিফ, সাংবাদিক রবিউল করিম দুলালসহ আরও অনেক ।
আমাদের সেসময়ে আড্ডা জমতো আলম খানের ‘তামান্না বুক ডিপো’তে।
প্রভাতীর ৫০ বছর স্মরণ অনুষ্ঠানে বন্ধুদের অনেককেই পাইনি। তাদের আমরা হারিয়ে ফেলেছি। তারা এখন চিরজীবীতদের দলে। বন্ধুরা ভাল থেকো যে যেখানে আছো। আজ তোমাদের কথা খুব বেশি মনে পড়ছে।
আমার সেই কলেজপড়ুয়া বন্ধু আমিরুল ইসলাম মুকুলের কথা কিছু বলা দরকার। কলেজ পাঠ চুকিয়ে আমরা যে যার মতো বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ি। বন্ধু আমিরুল ইসলাম মুকুল ব্যাংকের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ছিল। কর্মজীবন শেষে বন্ধু মুকুল আবার নতুন উদ্যোমে পত্রিকা এবং একটি প্রকাশনী সংস্থা গড়ে তুলেছে। পত্রিকা ও প্রকাশনী সংস্থার নাম ‘কারুকাজ’। তার উদ্যোগেই আজ এ প্রভাতীর স্মরণ সংখ্যা প্রকাশ পেয়েছে।

error: Content is protected !!