শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪, ২৯ আষাঢ়, ১৪৩১
Live TV
সর্বশেষ

পান্টি ডিগ্রি কলেজ মাঠে ইস্তিসকার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে

দৈনিক দ্বীনের আলোঃ
২৪ এপ্রিল, ২০২৪, ৩:১৬ অপরাহ্ণ | 173
পান্টি ডিগ্রি কলেজ মাঠে ইস্তিসকার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে
২৪ এপ্রিল, ২০২৪, ৩:১৬ অপরাহ্ণ | 173

 

মোঃ মুকুল হোসেন”(সহঃ বার্তা সম্পাদক)”
“দৈনিক দ্বীনের আলো” সংবাদপত্র..

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি ইউনিয়নবাসীর আয়োজনে তীব্র তাপদাহ থেকে রক্ষা পেতে বৃষ্টির আশায় ইস্তিসকার নামাজ আদায় করেছে কয়েকশত মুসল্লিসহ পান্টি ইউনিয়নের সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমানগন।

আজ ২৪শে এপ্রিল বুধবার সকালে উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে অবস্থিত পান্টি ডিগ্রি কলেজ মাঠে খোলা আকাশের নিচে এই ইস্তিসকার নামাজ আদায় করেন কয়েকশত মুসল্লীসহ ধর্মপ্রাণ মুসলমানগন । নামাজ শেষে আল্লাহর কাছে বৃষ্টির জন্য বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।
স্থানীয়রা জানান,পান্টি ইউনিয়নবাসির আয়োজনে আজ বুধবার সকাল ১১টায় পান্টি ডিগ্রী কলেজ মাঠে এই বৃষ্টির আশায় ইস্তিসকার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নানা রকম বয়সী মানুষ এই তাপদাহ থেকে রক্ষা পেতে নামাজের জন্য কলেজ মাঠে হাজির হন। নামাজের উদ্দেশ্য ঈমাম সাহেব প্রথমে মুসল্লিদের নামাজের নিয়ম-কানুন বলেন। এরপর দুই রাকাত নামাজ আদায় করেছেন পান্টি এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসলমানগন সবাই।

উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের কৃতি সন্তান মুহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল খালেক নেছারী বলেন, দীর্ঘদিন অনাবৃষ্টির কারণে মানুষ, পশুপাখি গাছপালাসহ সবাই কষ্টে আছে। সে জন্য বৃষ্টির আশায় নামাজ পড়েছি আমরা। খুৎবা পাঠ করেন মুহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল খালেক নেছারী। নামাজে ঈমাম’তি ও মোনাজাত করেন হাফেজ মাওলানা সাইদুর রহমান “(আবু সাঈদ)”। নামাজ শেষে দুই হাত তুলে প্রচন্ড গরম, তীব্র তাপপ্রবাহ ও খরা থেকে রক্ষা পেতে বৃষ্টি চেয়ে আল্লাহর কাছে মোনাজাত করেন সবাই।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এবং এলাকার সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমানগন। এসময় তিনি বলেন, কোরআন-হাদিসের আলোকে যতটুকু জানা গেছে, তা হলো মানুষের সৃষ্ট পাপের কারণেই মহান আল্লাহ এমন অনাবৃষ্টি ও খরা দেন। বৃষ্টিপাত না হলে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (স:) সাহাবিদের নিয়ে খোলা ময়দানে ইসতিসকার নামাজ আদায় করতেন। সে জন্যই তারা সৃষ্টিকর্তার কাছে পাপের জন্য তওবা করে এবং ক্ষমা চেয়ে দুই রাকাত নামাজ আদায় করে বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা করেছেন।

error: Content is protected !!